1. pratidinbarta24@gmail.com : admin : প্রতিদিনবার্তা২৪
  2. sajalsrabon46@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
রূপগঞ্জের কাঞ্চন পৌরসভায় ৩ মাস ধরে নিখোঁজ হওয়া এক ব্যবসায়ীর গলিত লাশ উদ্ধার । - প্রতিদিনবার্তা২৪.কম
শুক্রবার, ০২ অক্টোবর ২০২০, ০১:৩১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:-
পূর্বাচল প্রবাসী সমাজ কল্যাণ সংস্থা কর্তৃক ঈদ সামগ্রী বিতরন রূপগঞ্জের কাঞ্চন পৌরসভায় ৩ মাস ধরে নিখোঁজ হওয়া এক ব্যবসায়ীর গলিত লাশ উদ্ধার । “সুইসাইড কোনো সমাধান নয়”শেখানো ব্যাক্তিটি নিজেই সুইসাইড করলেন রূপগঞ্জে ছিনতাইকারীদের হাতে পিক আপ ড্রাইভার খুন দর্শকদের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ঈদের পরদিন ড:মাহফুজুর রহমানের একক সঙ্গীতানুষ্ঠান “হিমেল হাওয়ায় ছুঁয়ে যায় আমায় তারুণ্যের বিজ্ঞান আয়োজিত ক্যাম্পেইনে বিজয়ী “সৃষ্টির জন্য মানবতা সংগঠন” পূর্বাচল ৩০০ ফিট রাস্তার সমু মার্কেটে বাইক দুর্ঘটনায় একজন নিহত রুপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবু হোসেন ভুইয়া রানুর খাদ্য সামগ্রী বিতরন ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে বৃদ্ধাশ্রমে অসহায় মায়েদের পাশে অভিনেত্রী প্রিয়া আমান মানব সেবার মহান ব্রত নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে সৃষ্টির জন্য মানবতা সংগঠন

রূপগঞ্জের কাঞ্চন পৌরসভায় ৩ মাস ধরে নিখোঁজ হওয়া এক ব্যবসায়ীর গলিত লাশ উদ্ধার ।

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই, ২০২০
  • ২৭ বার দেখা হয়েছে

নিজস্বপ্রতিবেদক:বৃহস্পতিবার(০২/০৭/২০২০)সকাল ১১ঃ০০ ঘটিকায় (PBI)– এর পুলিশ সুপার (এসপি) এ আর এম আলিফ ও রূপগঞ্জ থানার নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগম, কাঞ্চন পৌর মেয়র আলহাজ্ব রফিকুল ইসলাম রফিক, স্থানীয় ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ রোকন মিয়া এবং এলাকার সাধারণ জনগন একসাথে  উপস্থিত হয়ে কুশাব এলাকায় মাসকো গ্রুপের চেয়ারম্যান জনাব এম এ সবুর সাহেবের পুকুর থেকে ড্রামের দু’পাশে সিমেন্ট ভর্তি করা লাশ উদ্ধার করেন।
৩ মাস আগে নিখোঁজ হওয়া কালাদী এলাকার কদম আলীর ছেলে হেকমত আলী (৪০) নিখোঁজ করার পর হত্যা করেছে বলে স্বীকার করেছে কাঞ্চন পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড এর স্থায়ী বাসিন্দা আসামী রফিকুল ইসলাম সবুজ (৩০)।
আসামি নিজ স্বীকারোক্তি দেয়া তথ্য অনুযায়ী  এ লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আরো জানা যায় যে, আসামি রফিকুল ইসলাম সবুজ মৃত হেকমত আলীর ভায়রার ছেলে । সে কাঞ্চন পৌরসভার কেরাব এলাকার ইয়াকুব মোল্লার ছেলে। হেকমত আলী গোলাকান্দাইল নূর ম্যানশন মার্কেটের নীচ তলায় হাসান এন্টারপ্রাইজ নামে একটি পার্সের দোকান আছে, ভায়রার ছেলে সবুজ ঐ দোকানে কর্মচারী হিসাবে কাজ করতো। জানা যায় সবুজ টাকা পয়সা আত্মসাতের জন্যই তাকে হত্যা করেছে। উদ্ধারকৃত গলিত লাশ ময়না তদন্তের জন্য ফরেন্সিক বিভাগে পাঠানো হয়েছে।
লাশ উদ্ধার হওয়ার পরেও বিক্ষুব্ধ জনতা আসামি রফিকুল ইসলাম সবুজ এর ফাসিঁর দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

এ জাতীয় আরো সংবাদ..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০প্রতিদিনবার্তা২৪.কম

Theme Customized BY LatestNews